শুক্রবার থেকে শুরু হতে যাচ্ছে ইন্ডিয়ান প্রিমিয়ার লিগ (আইপিএল) ২০১১
Wednesday, 06 April 2011পিয়ার খান

শুক্রবার থেকে মাঠে গড়াচ্ছে বিশ্বের সবচেয়ে বৃহৎ অর্থকরী ক্রিকেট ইভেন্টটি। আধুনিক ক্রিকেটের অন্যতম সেরা এ প্রতিযোগিতাকে ঘিরে ইতোমধ্যে ভারতসহ গোটা ক্রিকেটবিশ্বে উৎসবের আমেজ বিরাজ করছে। বিশ্বকাপের পর এখন ক্রিকেটের পালে যেন নব হাওয়া লেগেছে।

আগামীকাল চেন্নাইয়ে আসরের বর্তমান চ্যাম্পিয়ন চেন্নাই সুপার কিংস এবং কলকাতা নাইট রাইডার্সের মধ্যকার ম্যাচ দিয়ে যাত্রা শুরম্নর অপেৰায় আইপিএলের চতুর্থ আসর। বিশ্বকাপের বর্ণিল আসর শেষ হওয়ার পর দীর্ঘ ৫১ দিন, ৭৪ ম্যাচের এ প্রতিযোগিতার জন্য ইতোমধ্যে সংশিস্নষ্ট দল, ক্রিকেটার, ক্রিকেটামোদী, বিজ্ঞাপনী সংস্থা, বলিউডসহ বিভিন্ন জায়গায় উৎসাহ-উদ্দীপনা সৃষ্টি হয়েছে। বিশেষ করে ক্রিকেট অর্থায়নের স্বর্গভূমিখ্যাত ভারত এবার বিশ্বকাপ চ্যাম্পিয়ন হওয়ায় আইপিএলকে ঘিরে সৃষ্টি হয়েছে আলাদা প্রাণচাঞ্চল্য। অনেক বিরম্নদ্ধবাদী এরই মধ্যে বলেছেন, বিশ্বকাপ ক্রিকেটের জমাটি লড়াই দেখার পর আর কেউ আইপিএল নিয়ে মেতে উঠবে না! সংশয়বাদীদের এমন কথাকে প্রলাপ হিসেবে মনে করছেন আইপিএলের প্রধান নির্বাহী সুন্দর রমন। তিনি বলেন, যেখান থেকে বিশ্বকাপ যেখান থেকে শেষ হয়েছে ঠিক সেখান থেকেই শুরম্ন হবে আইপিএল উন্মাদনা। ভারতের বিশ্বকাপ জয় এৰেত্রে কোন প্রতিবন্ধক হিসেবে কাজ করবে না বরং এটি আসরকে জমজমাট করতে আরও সহায়তা করবে। সুন্দর রমন আরও বলেন, ভারতীয় দল সফল হওয়ায় আইপিএল বাণিজ্যে নতুন প্রাণ সঞ্চার করবে বলে আমাদের ধারণা। আমরা ভীষণ আশাবাদী পূর্বের আসরগুলোর সাফল্যকেও এবার ছাড়িয়ে যাবে আইপিএল। আগামীকাল এবারের আসরের প্রথম দিনেই মাঠ গরম করতে যাচ্ছেন বিভিন্ন ৰেত্রে বিশ্বখ্যাত তারকারা। দীর্ঘ ২৮ বছর পর ভারতকে বিশ্বকাপ এনে দেয়া অধিনায়ক মহেন্দ্র সিং কালও শিরোপা পুনরম্নদ্ধার করার মিশনে মাঠে নামছেন। এৰেত্রে তাদের প্রতিপৰ বলিউডের বাদশা শাহরম্নখ খানের দল কলকাতা নাইট রাইডার্স। আসরের প্রথম দিনই তাই গস্ন্যামারে টইটুম্বর হতে চলেছে।


এদিকে অংশগ্রহণকারী দলগুলো বিশ্বকাপের ডামাডোল শেষ হওয়ার পর তাদের প্রস্তুতি সম্পন্ন করে মাঠের লড়াইয়ের জন্য অপেৰমাণ। এৰেত্রে শিরোপা প্রত্যাশী অনেক দলকেই লড়তে হচ্ছে ঘাতক ইনজুরির সঙ্গে। ইংল্যান্ডের তারকা ব্যাটসম্যান কেভিন পিটারসেনের ডেকার্ন চার্জাসের হয়ে খেলার পথ রম্নদ্ধ করে দিয়েছে ঘাতক ইনজুরি। এ কারণে ইতোমধ্যে টুর্নামেন্ট থেকে নাম প্রত্যাহার করে নিয়েছেন কেপি। ইংল্যান্ডের টি ২০ অধিনায়ক পল কলিংউডেরও আইপিএল স্বপ্ন শেষ করে দিয়েছে ডান হাঁটুর ইনজুরি। এবারের আসরের নতুন দল পুনের হয়ে চুক্তিবদ্ধ হওয়া শ্রীলঙ্কান অলরাউন্ডার এ্যাঞ্জোলো ম্যাথুসও লড়ছেন ইনজুরির সঙ্গে। এদিকে রয়্যাল চ্যালেঞ্জার্স ব্যাঙ্গালুরম্ন অধিনায়ক হিসেবে নাম ঘোষণা করেছে কিউই তারকা ড্যানিয়েল ভেট্টরির। বস্নাকক্যাপস তারকা আগের তিন আসর খেলেছিলেন দিলস্নী ডেয়ারডেভিলসের হয়ে। মঙ্গলবার শ্রীলঙ্কান জাতীয় দলের অধিনায়কত্ব ছাড়া কুমার সাঙ্গাকারা ডেকার্ন চার্জার্সের অধিনায়ক মনোনীত হয়েছেন। সাবেক অস্ট্রেলিয়ান তারকা এ্যাডাম গিলক্রিস্ট নেতৃত্ব দেবেন কিংস ইলেভেন পাঞ্জাবকে। বর্তমান চ্যাম্পিয়ন চেন্নাই সুপার কিংসের বোলিং কোচ হিসেবে নিয়োগ পেয়েছেন সাবেক অসি পেসার এন্ডি বিকেল। সাবেক ভারতীয় পেসার ভেঙ্কটেস প্রসাদের স্থলাভিষিক্ত হচ্ছেন তিনি। প্রসাদ এবার যোগ দিয়েছেন নতুন দল কোচি কেরালায়। বর্তমান চ্যাম্পিয়নরা নতুন করে দলভুক্ত করেছেন সদ্য শেষ হওয়া বিশ্বকাপে নজরকাড়া নৈপুণ্য দেখানো কিউই পেসার টিম সাউদিকে। ওয়েস্ট ইন্ডিজের ডোয়াইন ব্রাভো ও ডগ বলিঞ্জার বিশ্বকাপের মাঝখানে ইনজুরি আক্রানত্ম হয়ে দেশে ফিরে যান। এ কারণে সাউদিকে দলে টেনেছেন চেন্নাই সুপার কিংস। দৰিণ আফ্রিকান অলরাউন্ডার রায়ান ম্যাকলারেনকে দলভুক্ত করেছে কিংস ইলেভেন পাঞ্জাব। বিশ্বকাপ উন্মাদনার পর এবার চতুর্থবারের মতো শুরম্ন হতে যাচ্ছে প্রত্যাশিত এ ক্রিকেট যজ্ঞ। আগের তিন আসরে ৮টি করে দল খেললেও এবার দলসংখ্যা বাড়িয়ে ১০ এ উন্নীত করা হয়েছে। চেন্নাই সুপার কিংস, ডেকান চার্জার্স, দিলস্নী ডেয়ারডেভিলস, কিংস ইলেভেন পাঞ্জাব, কলকাতা নাইট রাইডার্স, মুম্বাই ইন্ডিয়ান্স, রাজস্থান রয়্যালস, রয়্যাল চ্যালেঞ্জার্স ব্যাঙ্গালুরম্নর সঙ্গে এবার টি২০-র ময়দানী যুদ্ধে শামিল হচ্ছে কোচি তস্কর কেরালা ও পুনে ওয়ারিয়র্স। অসম্ভব দর্শকপ্রিয় এ আসরকে সাফল্যম-িত করতে ইতোমধ্যে আয়োজকদের সবরকম প্রস্তুতি সম্পন্ন হয়েছে। প্রতিটি দলের বিশেষ তারকা ব্যক্তিত্বরা তাদের দলের প্রচারণার কাজেও শামিল হয়েছেন। ক্রিকেট উন্মাদনার নতুন এই পালে এবার বাংলাদেশের একমাত্র সৈনিক শাকিব-আল-হাসান।এবারের আইপিএলে বাংলাদেশি টাকায় প্রায় তিন কোটিতে বিকিয়েছেন কলকাতার ফ্র্যাঞ্চাইজ নাইট রাইডার্সের কাছে। তাই আইপিএলের আসরে বাংলাদেশের মানুষের আগ্রহটা থাকবে বলিউড তারকা শাহরুখ খানের মালিকানাধীন কলকাতার এই ফ্র্যাঞ্চাইজটির দিকেই। হয়তো থাকবে সমর্থনও।

পাঠকের মন্তব্য
 
    মন্তব্য প্রদান করুন
    Your message